Khabar AajkalNewsPopular

#কেষ্টপুর দুই ছাত্রের দেহ উদ্ধারের ঘটনায় নতুন তথ্য।।

#কেষ্টপুর দুই ছাত্রের দেহ উদ্ধারের ঘটনায় নতুন তথ্য।।

কেষ্টপুরের দুই ছাত্র খুনের মূল অভিযুক্ত এখনও অধরা। মঙ্গলবারই গ্রেফতার করা হয়েছে চার জনকে। এই রহস্য জনক ঘটনায় তদন্তে নেমে পুলিশের হাতে উঠে আসছে চাঞ্চল্যকর বেশ কিছু তথ্য।

সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, ৫০ হাজার টাকা দিয়ে একটি সেকেন্ড হ্যান্ড বাইক কেনার কথা ছিল অতনুর। মিনাখাঁ থেকে কর্নাটকের রেজিস্ট্রেশন করা একটি গাড়ি ভাড়া করে মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র। ২২ তারিখ সেই গাড়ি নিজের গ্যারেজে নিয়ে আসে সে। জানা যায় বছর খানেক আগে ওই এলাকায় একটি দোকান ভাড়া নিয়ে অটো পার্টসের গ্যারেজ খুলেছিল সত্যেন্দ্র। বাইক কেনার নাম করে অভিষেক ও অতনুকে সেদিন ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে গাড়িতে তাদের নিয়ে রাজারহাটে নিয়ে যাওয়া হয়। রাজারহাটের শোরুমে বাইক পছন্দ না হওয়ায় তারা বাসন্তী হাইওয়ের দিকে রওনা দেয়। পরে সেখানেই গাড়িতে দু’জনকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ।

ন্যাজাট ও হাড়োয়া খাল থেকেই উদ্ধার হয় দুই ছাত্রের দেহ। পুলিশ মনে করছেন পরিকল্পিতভাবেই খুন করা হয়েছে দুই ছাত্রকে।জানা গেছে মিনাখাঁ থেকে সেলফ সার্ভিসের গাড়ি ভাড়া নিয়ে গিয়েছিল সত্যেন্দ্র। গাড়িতে পাঁচ জন ছিল। ছিল দড়িও। অনুমান যা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে ওই দুই ছাত্রকে।

জানা যায় সত্যেন্দ্র বিহারের বাসিন্দা। পাঁচ বছর আগে কেষ্টপুরের এক মহিলাকে ভালবেসে বিয়ে করে। সত্যেন্দ্রর এক মেয়েও রয়েছে তার । তবে সত্যেন্দ্রর কোনও অপরাধের পাস্ট রেকর্ড নেই। স্থানীয় এক মহিলা বলেন, “সত্যেন্দ্র তো পাড়ার জামাই। ভীষণ ভাল ব্যবহার।” সত্যেন্দ্র যে এরকম করতে পারে, তা ভাবতেও পারছেন না স্থানীয় বাসিন্দারা।

Related Articles

Back to top button