North Bengal Siliguri WestBengal

কমছে না সামাজিক দূরত্ব মালদা জেলায় আক্রান্ত 31 !

মালদা; মালদা জেলায় হরিশ্চন্দ্রপুর এ পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পরিযায়ী শ্রমিকের ঢল। ক্রমেই বেড়ে চলেছে এদের সংখ্যা। মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা তে রোজ দিনই দেখা যাচ্ছে এদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে। এখান থেকে পরীক্ষা করিয়ে নিজ নিজ গ্রামে ফিরে যাচ্ছেন। কোথাও বা গ্রামের কোয়ারেন্টিন সেন্টারে থাকছেন কখনো বা নিজের বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। কিন্তু থানায় পরীক্ষা করতে এসে পুলিশের শত নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে কোন সামাজিক দূরত্বের বিধি নিষেধ মানছেন না এরা। থাকছে না মাস্ক। আতঙ্কে রয়েছে এলাকাবাসী। গত 24 ঘন্টায় মালদা জেলাতে আরো 31জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে।জেলার চাঁচল, সহ বিভিন্ন এলাকায় নতুন করে পরিযায়ী শ্রমিকদের দেহে এই মারণ ভাইরাসের খোঁজ পাওয়া গেছে।মালদায় এখনো পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন 58 বুধবার রাত পর্যন্ত মোট ৯৬১ জনের লালা রস পরীক্ষা করা হয়েছে। কিন্তু গতকাল রাতের রিপোর্টে সংখ্যাটা বেড়ে যায় শুধু মালদা জেলাতে 31 জনের মধ্যে মরণ ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে।এ পর্যন্ত মালদা মেডিকেল কলেজে পরীক্ষা করা হয়েছে ৯৯৮৮ জনের লালারসের নমুনা।এখনো পরীক্ষা চলছে ৯৯২ জন এর।পরীক্ষা বাকি রয়েছে ২৭৬৩ জনের।আক্রান্ত প্রত্যেকেই পরিযায়ী শ্রমিক।তবে জেলায মোট করোনা আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো ৮৯ জন | তারই মধ্যে বেশ কয়েকজন ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
স্থানীয় বাসিন্দা চন্দ্রনাথ রায় জানালেন সামাজিক দূরত্ব না মানলে বা সাবধানতা অবলম্বন না পড়লে অচিরেই হরিশ্চন্দ্রপুর এ মহামারি শুরু হয়ে যাবে এতদিন তাহলে আমরা এইযে সাবধানতা অবলম্বন করলাম তা বেকার হয়ে যাবে।
হরিশ্চন্দ্রপুর 1 নং ব্লকের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জানান সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত। যেসব পরিযায়ী শ্রমিক আসছেন তাদেরকেও মুখে মাস্ক ও সোশ্যাল ডিস্টেন্স বোঝায় রাখতে হবে। সাবধানতা সকলের পক্ষে জরুরি।
জেলার পুলিশ সুপার অলক রাজোরিয়া জানান জেলাতে বিভিন্ন জায়গায় দোকানপাট খোলা হয়েছে। কিন্তু সকল মানুষের কাছে আমরা অনুরোধ করছি যেন সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স মেনটেন করে তারা কেনাকাটা করেন। অযথা ভিড় না করেন। নইলে আমরা আইনত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হব।

News: Tanuj Jain.

Share this:

You may also like