North Bengal Politics Siliguri WestBengal

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী দৃষ্টিহীন আনসারুল এর পাশে যুব তৃণমূল নেতা।

হরিশ্চন্দ্রপুর: দৃষ্টিহীন ছাত্র তথা এ বছরে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী আনসারুল হক এর পাশে দাঁড়ালো মালদা জেলার যুব তৃণমূল নেতা বুলবুল খান। সংবাদমাধ্যমে দৃষ্টিহীন পরীক্ষার্থী আনসারুল হক এর কথা প্রকাশ হবার পরেই তার সঙ্গে দেখা করতে ছুটে আসেন মালদা জেলা যুব তৃনমূলের সহ-সভাপতি বুলবুল খান। তিনি আনসারুল হক এর হাতে কিছু আর্থিক সাহায্য সহ অন্যান্য খাবার সামগ্রী তুলে দেন। তার সাথে কিছুক্ষণ সময় কাটান। তার সমস্ত অসুবিধার কথা মন দিয়ে শোনেন। আশ্বাস দেন ভবিষ্যতে কোন কিছুর প্রয়োজন হলে তাকে ফোন করে জানাতে।আগামীতেও তার পড়াশোনা ও অন্যান্য ব্যাপারে সাহায্য করা হবে বলে জানান বুলবুল খান।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য রতুয়া থানার বলদিপুকুর গ্রামে দৃষ্টিহীন আনসারুল এর বাড়ি। জন্ম থেকে দৃষ্টিহীন সে। ছোটবেলাতেই বাবাকে হারিয়েছে। মা জরিনা বিবি দুই ভাইবোন সাথে আনসারুল কে অনেক কষ্টে মানুষ করেছে। এক ভাই কলিমুদ্দিন অন্য রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করে। বোন রোশনারা স্কুলছাত্রী। দৃষ্টিহীন আনসারুল এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছে। প্রচুর অভাব অনটনের মধ্যে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে চায়। সে মিলনগড় হাই মাদ্রাসার ছাত্র। এবার তার পরীক্ষার সিট পড়েছে মিটনা হাই স্কুলে। সে এবার রাইটার নিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছে। পরীক্ষা দিচ্ছে এবার খুব আশাবাদী। এই খবর গত মঙ্গলবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।
আজ এই খবরের জেরে তৃণমূল জেলা যুব সহ-সভাপতি বুলবুল খান আনসারুল এর পাশে দাঁড়ায়। বাড়িয়ে দেয় সাহায্যের হাত।
এ প্রসঙ্গে বুলবুল খান জানান আমি সংবাদপত্রে আনসারুল এর কথা জানতে পেরে তাকে যথাসাধ্য সাহায্য করলাম। আগামীতেও তার প্রয়োজন মাফিক আমি সাহায্য করবো। ও যাতে পড়াশোনা করার ক্ষেত্রে কোনরকম বাঁধা না আসে সেই ও ব্যবস্থা করা হবে। রতুয়া জেলা পরিষদের কর্মাদক্ষ হুমায়ুন কবির (বাজনা)কেআমি অনুরোধ করছি যাতে ছেলেটির প্রতিবন্ধী ভাতা চালু করে দেয়া হয় এবং অন্যান্য সাহায্যের ব্যবস্থা স্থানীয় পঞ্চায়েত থেকে করা হয়।
প্রসঙ্গত এর আগেও দৃষ্টিহীন মমতা দাসের পাশেও দাঁড়িয়েছিলেন তৃণমূল নেতা বুলবুল খান। সরকারি সাহায্য না পেয়ে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মমতা দাস। তাকেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন বুলবুল খান। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না
এ প্রসঙ্গে আনসারুল হক জানালেন বুলবুল বাবুর সাহায্য পেয়ে আমি আপ্লুত। সাথে আমি আরও পড়াশোনা করতে চাই জেনে তিনি আগামী তো আমাকে সাহায্য করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।
আনসারুল রাইটার ইজাজ আহমেদ জানালেন আজ বুলবুল খান আনসারুল এর সঙ্গে দেখা করলেন তাকে কিছু আর্থিক সাহায্য সহ অন্যান্য সাহায্য করলেন। আগামীতে তার পড়াশোনার ব্যাপারে সাহায্য এর আশ্বাস দিলেন।

News: তনুজ জৈন;

Share this:

You may also like