North Bengal Politics Siliguri WestBengal

বাংলার গর্ব মমতা স্বীকৃতি সম্মেলনের ডাক পেলেন না জনপ্রতিনিধিরা।

হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর এ তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আবার প্রকাশ্যে চলে এল। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ঘটনায় জেরবার হয়ে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আসন্ন বিধানসভা ভোট তার আগেই এমন গোষ্ঠী কোন্দল দলীয় কর্মীদের মনে হতাশা সৃষ্টি করেছে। কিছুদিন আগেই বাংলার গর্ব মমতা কে কেন্দ্র করে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল হরিশ্চন্দ্রপুর এ। জলযোগে যোগাযোগ এই কর্মসূচিতে ও গোষ্ঠী কোন্দল ছায়া দেখা গিয়েছিল। একই বিধানসভায় 2 ব্লকে দুইটি কর্মসূচি হয় একই দিনে। আজ আবারো বাংলার গর্ব মমতার স্বীকৃতি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো। এই সম্মেলনের ডাক দিয়েছিলেন হরিশ্চন্দ্রপুর বিধানসভার কো-অর্ডিনেটর প্রাক্তন বিধায়ক তাজমুল হোসেন। এই স্বীকৃতি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসের দোতালায়। সেখানে পুরনো কর্মীদের কে সম্মান জ্ঞাপন করা হয় তাদের স্বীকৃতি স্বীকার করে নেওয়া হয়। কিন্তু এই স্বীকৃতি সম্মেলনেই ডাক পেলেন না এলাকার দুই জেলা পরিষদ কর্মাদক্ষ সদস্যসহ অনেক তৃণমূল কর্মীরা। এনিয়ে গোষ্ঠী কোন্দল আবার মাথা চাড়া দিল হরিশ্চন্দ্রপুর এ। এ দিনটা তাজমুল হোসেনের ডাকে স্বীকৃতি সম্মেলনের ডাক পাননি জেলা পরিষদের কর্মাদক্ষ মর্জিনা খাতুন মমতাজ বেগম সহ পার্টির অনেক তাবড় তাবড় নেতৃত্ব। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য আছেন হেফজুর রহমান, তাবারক হোসেন, নাসিম আক্তার,হারাধন দাস প্রমুখ ব্লক নেতৃত্ব। এই নিয়ে তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে জেলা পরিষদ কর্মাধ্যক্ষ মর্জিনা খাতুন জানান তাজামুল সাহেব নিজের মর্জি মতো নিজের অনুগামীদের নিয়ে দল চালাচ্ছেন। তিনি বিধানসভা মেন্টর। ও কডিনেটর কাজ করছে। সেখানে দলের ছোট বড় সবাইকে নিয়েই তার চলা উচিত। আজকের সম্মেলনেও তাদেরকে ডাকা হয়নি। পূর্ব এরকম হয়েছে। এই বিষয়ে দলের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানাবো।

এ প্রসঙ্গে দলের আরেক জেলা পরিষদের সদস্য মমতাজ বেগম জানালেন উনি কোন কর্মসূচি নেই আমাদের কে বলেন না। নিজের কয়েকজন অনুগামীদের কে নিয়ে দলটা চালানোর চেষ্টা করেন। উনি দল কে ভালোবাসেন না। দলকে ভাঙিয়ে বিজনেস করেন। আমরা তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে তৃণমূলের কর্মী। দলের সবসময়ই দলের পাশে আমরা আছি। এর আগের কর্মসূচিগুলোতে আমাদেরকে কোন রকম জানায়নি আজকের কর্মসূচি সম্বন্ধেও আমাদের কাছে কোনো খবর দেওয়া হয়নি।

একই অভিযোগ তুললেন হরিশ্চন্দ্রপুর 2 নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের জেনারেল সেক্রেটারি হেফজুর রহমান তিনি জানালেন দীর্ঘদিন ধরে তাজামুল হোসেন সাহেব নিজের মর্জি মতো দলটাকে চালানোর চেষ্টা করেন। আমরা দলটাকে মানি দলের সংগঠন কে মেনে চলি। দলের মধ্যে আমরা ব্যক্তিতন্ত্র কে প্রশ্রয় দিই না। এ সমস্ত কারণে আমাদেরকে উনি বিধানসভা কো-অর্ডিনেটর হয়েও আমাদেরকে কোন কর্মসূচিতে ডাক দেন না। নিজের কয়জন অনুগামী কে নিয়ে দলটাকে চালানোর চেষ্টা। আরে পার্টি চলে না।আমরা জেলা কংগ্রেসের রাজ্য কমিটিতে এ বিষয়ে অভিযোগ জানাবো।

যেখানে কিছুদিন আগেই জেলা সফরে এসে মালদার গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে স্থানীয় নেতাদের কে সতর্ক করেছেন দলের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি। সেখানে কয়েকদিন যেতে না যেতেই বাংলার গর্ব মমতা কর্মসূচিকে ঘিরে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে গোষ্ঠী কোন্দল শুরু হয়ে গিয়েছে। এই গোষ্ঠী কোন্দল এর ফায়দা বিরোধীপক্ষ কতখানি তুলবে সেটাই এখন দেখার।

এ প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর বিধানসভা কো-অর্ডিনেটর ও প্রাক্তন বিধায়ক তাজমুল জানান আমি দলের প্রত্যেক কর্মীকে আজকের কর্মসূচিতে আসতে বলেছিলাম। কিন্তু তারপরও কেউ কেউ কেন এলোনা সেটা আমি বলতে পারবো না।

Share this:

You may also like