North Bengal

হোণ্ডাসিটি গাড়ি সহ গ্রেপ্তার কংগ্রেস নেতা।

মহারাষ্ট্রের নম্বর দেওয়া হোণ্ডাসিটি গাড়ি সহ এক কংগ্রেস নেতাকে গ্রেফতার করলো মালদা মোথাবাড়ি থানার পুলিশ। দক্ষিণ মালদার কংগ্রেস প্রার্থী আবু হাসেম খান চৌধুরীর (ডালু) অনুগামী ওই কংগ্রেস নেতা গ্রেফতারের ঘটনায় কালিয়াচক এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে মোথাবাড়ি এলাকায় ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ তুলেছে সংশ্লিষ্ট এলাকার তৃণমূলের পর্যবেক্ষক ছোটন মল্লিক। যদিও তৃণমূলের এই অভিযোগকে মানতে নারাজ কংগ্রেস নেতৃত্ব । তৃণমূলের কথায় পুলিশ চলছে এবং তাদের দলের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলায় জেলে পুড়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন কংগ্রেস প্রার্থী ডালুবাবু।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েকদিন ধরে লাল রংয়ের চার চাকার হোন্ডা সিটি একটি গাড়ি সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল। ওই গাড়ির নম্বর মহারাষ্ট্রের । মঙ্গলবার গভীর রাতে মোথাবাড়ি থানার তদন্তকারী পুলিশ অফিসার সৌমজিৎ মল্লিক স্ট্যান্ডের কাছে ওই গাড়িটিকে আটক করে। এই ঘটনায় মোহাম্মদ মোক্তারুল নামে এক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গাড়ির কাগজপত্র দেখাতে পারে নি এই ব্যক্তি। এরপর তার অসংলগ্ন কথাবার্তাতে পুলিশের সন্দেহ হওয়াতে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। আটক করা হয়েছে ওই চার চাকার গাড়িটি।
এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত কংগ্রেস প্রার্থী ডালুবাবুর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। মোক্তারুল মোথাবাড়ি কেন্দ্রের কংগ্রেস কমিটির সদস্য পদে রয়েছে । ওই ব্যক্তি কংগ্রেস প্রার্থী ডালুবাবুর ঘনিষ্ঠ মোক্তারুল গ্রেফতারের ঘটনায় মোথাবাড়ি এলাকায় রাজনৈতিক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।মোথাবাড়ি কেন্দ্রের তৃণমূল দলের পর্যবেক্ষক’ ছোটন মল্লিকের বক্তব্য, ওই এলাকার ভোটারদের প্রভাবিত করেছিল ওই কংগ্রেস নেতা। ডালুবাবুর নাম করে রাতের অন্ধকারে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নানান ভাবে ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছিল। আমরা এই ঘটনার প্রতিবাদ করে পুলিশকে জানিয়েছি। এরকমভাবে অনেকেই ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। তাদের বিরুদ্ধে যেন পুলিশ ও প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেই।যদি এই প্রসঙ্গে কংগ্রেস প্রার্থী ডালুবাবু বলেন, তৃণমূলের অভিযোগ সঠিক নয়। মোহাম্মদ মক্তারুলকে আমি চিনি । উনি অত্যন্ত ভালো মানুষ। মোথাবাড়ি এলাকায় ভালো কাজ করছে। সেটাই তৃণমূলের ঈর্ষার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মিথ্যা মামলায় ওই কংগ্রেস কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । নির্বাচন কমিশনের কাছে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের কাজকর্ম নিয়ে অভিযোগ জানাবো।মোথাবাড়ি থানার ওসি সৌমজিৎ মল্লিক জানিয়েছেন , বাইরের নম্বর লাগানো একটি গাড়ির কাগজপত্র না পেয়ে সেটিকে আটক করা হয়েছে। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে । পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

News: হক জাফর ইমাম।

Share this:

You may also like