North Bengal

পণের দাবিতে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে।

পণের দাবিতে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল গুণধর স্বামীর সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা পুকুরিয়া থানার পীরগঞ্জ এলাকায়। মৃতার পরিবারের থেকে মালদা পুকুরিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে মালদা পুকুরিয়া থানার পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত স্বামী শ্বশুর বাড়ির লোকজন পলাতক।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত গৃহবধূর নাম মায়া সরকার(১৯) অভিযুক্ত স্বামীর নাম সোনু সরকার। মৃত মায়া সরকারের বাবার বাড়ি পুখুরিয়া থানা মির্জাপুর এলাকায়। মৃতার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে ৭ মাস আগে সোনু সরকারের সাথে বিবাহ হয় মায়া সরকারের।

বিবাহর সময় তিন লক্ষ টাকার পন দেওয়া হয় সোনু সরকারকে। বিবাহর পর থেকে শশুর বাড়ি কাছে প্রাণের দাবি করতে থাকে সোনু সরকার বলে অভিযোগ। সাত মাসের মধ্যে একবার দুই পরিবার মিলে বিচার শালিস করে ও সমাধানের চেষ্টা হয়নি এতটুকুও।শুক্রবার সকালে গৃহবধূর বাবার বাড়িতে ফোন করে জানায় জানান তাদের মেয়ে ঘরে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।খবর পেয়ে তড়িঘড়ি বাবার বাড়ির লোকেরা ছুটে আসার আগেই দেহ আড়াই ডাঙ্গা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ফেলে পালিয়ে যায় জামাই সহ শ্বশুরবাড়ির লোক জনেরা বলে অভিযোগ।মৃত ওই গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগ জামাই নিয়মিত মেয়ের উপর অত্যাচার চালাত বাবার কাছ থেকে টাকা আনতে বলতো তার কারণেই মেয়েকে শ্বাসরোধ করে ঝুলিয়ে খুন করেছে জামাই শ্বশুর বাড়ির লোক জনেরা।ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী সোনু সরকার শশুর গণেশ সরকার শাশুড়ি লতা সরকার দেওর অমিত সরকারের বিরুদ্ধে মালদা পুকুরিয়া থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে মৃত ওই গৃহবধূর বাবা গৌড় সরকার। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত নেমেছে পুকুরিয়া থানার পুলিশ।

News: হক জাফর ইমাম।

Share this:

You may also like