North Bengal

রামনগর কাচারির যুবকদের উদ্যোগে রিয়ম ঝাকে হুইল চেয়ার প্রদান।

মালদা শহরের রামনগর কাচারির যুবকদের উদ্যোগে রিয়ম ঝাকে হুইল চেয়ার প্রদান করলে। উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা আদালতের বিশিষ্ট আইনজীবী সুদীপ্ত গঙ্গ্যোপাধ্যায় ,মালদা টাউন স্কুলের শিক্ষক সুকুমার সাহা অবসরের জীবনশিখা স্বেচ্ছাসেবীর সদস্য পার্থ চ্যাটার্জি সহ রামনগর কাচারি যুবকবৃন্দ।রিয়ম ঝা নামে বছর দশেকের একটি ছেলের করুণ কাহিনি৷ সে মালদা জেলা স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে৷ বাবা পূর্ণচন্দ্র ঝা প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক৷ মা কাকলি ঝা সাধারণ গৃহবধু।রিয়ম ঝা কিছু সময় পর থেকেই দুই পায়ের ক্ষমতা হারিয়েছে ৷ বিকলাঙ্গ ছেলেকে নিজের ঘাড় থেকে ঝেড়ে ফেলতে গত ১০.০৬.২০১৪ তারিখে রিয়ম ও কাকলিদেবীকে ত্যাগ করেন পূর্ণচন্দ্র ঝা। অভাবের সংসার কাকুলি দেবীর তবুও হাল ছাড়েন ছেলের প্রতি মায়ের কর্তব্য থেকে।

কিছুদিন আগে রিয়মের বৃত্তান্ত জানতে পেরেছিলেন অবসরের জীবনশিখার সদস্যরা৷ চারদিক খুঁজে গত ২৬ শে জানুয়ারি তাঁরা নিজেদের অনুষ্ঠানে হাজির করেন রিয়মকে৷ সেই দিনই মালদা শহরের রামনগর কাচারীর যুবকেরা সিদ্ধান্ত নেন রিয়ম কে একটি হুইল চেয়ার দেওয়ার আজ রবিবার রিয়ম কে হুইল চেয়ারের সাথে পড়াশোনার সামগ্রি কিছু খাওয়ার সামগ্রী প্রদান করেন মালদা শহরের রামনগর কাচারীর যুবকেরা। জিনিস গুলি পাওয়ার পর কাকলি ঝা সংবাদমাধ্যমকে জানান এতদিন ভাবছিলাম আমি একা যুদ্ধ করছি যেভাবে অবসরের জীবনশিখার সদস্যরা ও মালদা শহরের রামনগর কাচারি যুবকেরা আমাদের মা ছেলের ওপর সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে তাতে আমি ধন্যবাদ জানাই আমাকে সাহায্য করার জন্য।
মালদা জেলা আদালতের বিশিষ্ট আইনজীবী সুদীপ্ত গঙ্গ্যোপাধ্যায় সংবাদমাধ্যমকে বলেন আমাদের লক্ষ্য হল সব ধরনের বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো৷ মূলত বাচ্চাদের দিকে আমরা বিশেষ নজর রাখি৷ যাতে তারা এগিয়ে যেতে পারে, যাতে তারা কোনও খারাপ সঙ্গে জড়িয়ে না পড়ে৷ তারা যেন মূল স্রোতে থেকে সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে তার দিকেই আমাদের লক্ষ্য থাকে৷

News: হক জাফর ইমাম।

Share this:

You may also like